বৃষ্টির পূর্বাভাস দিতে পারে এই মন্দির। বিজ্ঞান, নাকি ঐশ্বরিক লীলা?

বৃষ্টির পূর্বাভাস দিতে পারে এই মন্দির। বিজ্ঞান, নাকি ঐশ্বরিক লীলা?
হিন্দুনববার্তা 20february 2017.

এই মন্দিরের কাছে হার মানতে পারে আবহাওয়া দফতরও। কারণ এই মন্দির নাকি বৃষ্টির নিখুঁত পূর্বাভাস দিতে পারে। শুধু তা-ই নয়, এই মন্দির নাকি কেমন বৃষ্টি হবে মুষলধার নাকি ঝিরিঝিরি, তারও আভাস দিতে সক্ষম। কানপু‌রের জগন্নাথ মন্দিরের পার্শ্ববর্তী অঞ্চলের মানুষজন এমনটাই দাবি করছেন।

1487557245254.jpg

কয়েক শতাব্দী পুরনো এই জগন্নাথ মন্দিরের অবস্থান ভারতের উত্তরপ্রদেশের বেহতা গ্রামে। শোনা যায়, বর্ষা আসার প্রায় দিন পনেরো আগেই নাকি এই মন্দির জানিয়ে দিতে পারে আসন্ন বৃষ্টির কথা।

কিন্তু কীভাবে? ভক্তেরা জানাচ্ছেন, বর্ষা যখনই আসুক না কেন, তার প্রায় দু’সপ্তাহ আগে থেকে এই মন্দিরের ছাদ থেকে শুরু হয় জল ঝরা। এটাই হয়ে ওঠে আসন্ন বর্ষার চিহ্ন।

এমনকী, এই জলের ধারারও ইতরবিশেষ ঘটে। যে বছর ভারি বর্ষা হয় সেই বছর মুষলধারে জল পড়তে থাকে মন্দিরের ছাদ থেকে। আবার যে বছর বৃষ্টি হবে হালকা, সেই বছর ছাদ থেকে ঝরে পড়া জলের ধারাও হয় ক্ষীণ। এই নিয়মের ব্যতিক্রম নাকি আজ পর্যন্ত কোনও বছর ঘটেনি।

এই মন্দিরের আশেপাশে ৫০ কিলোমিটার ব্যাসার্ধ এলাকা জুড়ে প্রায় ৩৫টি গ্রামের মানুষজন বৃ্ষ্টির আগাম খবর পেতে এই মন্দিরের উপরেই নির্ভর করেন আজও। সেই অনুসারেই চাষবাসের বন্দোবস্ত করেন তাঁরা।

তাঁদের বিশ্বাস, সবটাই ঈশ্বরের লীলা। ঈশ্বরের লীলার এই বিষয়টি, বলা বাহুল্য, বিজ্ঞানীরা বিশ্বাস করেন না। কিন্তু কেন বা কীভাবে এই জল ঝরার ঘটনা ঘটে, তার কোনও সুস্পষ্ট ব্যাখ্যা অবশ্য তাঁরাও দিতে পারেননি এখনও।

সুত্র: এইবেলাডটকম।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s