নোটবাতিলের বিরোধিতা করা কি ভুল ছিল? প্রশ্ন তৈরি হয়ে গেলো তৃনমূলের অন্দর মহলেই।

নোটবাতিলের বিরোধিতা করা কি ভুল ছিল? প্রশ্ন তৈরি হয়ে গেল তৃণমূলের অন্দরেই

 

1489329435675

হিন্দুনববার্তা বাংলা ডেস্ক:১২.০৩.২০১৭.

নোটবাতিলের বিরোধিতা নিয়ে প্রশ্ন তৈরি হয়েছে তৃণমূলের অন্দরেই। উত্তরপ্রদেশের ভোটের ফলাফল ঘোষণার পর বিষয়টি ভাবাচ্ছে রাজ্যের শাসকদলের শীর্ষনেতৃত্বকে। শুধু তা-ই নয়, পাঁচ রাজ্যের নির্বাচনে সাধারণভাবে মোদী-ঘরানা প্রত্যাখ্যাত হয়নি বলেও মানছেন দলের একটা বড় অংশ।
মুখ্যমন্ত্রী তথা দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অবশ্য প্রাথমিক প্রতিক্রিয়ায় ফলাফলের বিশ্লেষণ করেননি। তাঁর টুইট, ‘ভোটে কেউ জেতে কেউ হারে। গণতন্ত্রে পরস্পরকে সম্মান করতে হয়’।
উত্তরপ্রদেশের ফলের প্রেক্ষিতে বিজেপি-বিরোধী শিবিরের প্রধান শক্তি হিসাবে নিজেদের ভূমিকার মূল্যায়নও করেছে তৃণমূল। নোটবাতিলের প্রতিবাদে দেশে প্রথম সরব হয়েছিলেন মমতাই। জাতীয়স্তরেও বিজেপি-বিরোধী দলগুলিকে একজোট করতে সচেষ্ট হয়েছিলেন তিনিই। কিন্তু সেই নোটবাতিলের জন্য বিজেপি’র যে বিশেষ ক্ষতি হয়নি, তা প্রায় স্পষ্ট এই ফলাফলে।

1488564213218

 
নোটবাতিলে বিজেপি’র বিশেষ ক্ষতি হয়নি, তা স্বীকার করলেও নিজস্ব ব্যাখ্যাও দিয়েছেন তৃণমূলের সহ-সভাপতি মুকুল রায়। তাঁর কথায়, ‘‘এই রায়ে দেশের ১৩০ কোটি মানুষের মত প্রতিফলিত হয়নি। মাত্র পাঁচ রাজ্যে ১৬ কোটি মানুষ ভোট দিয়েছেন।’’
পাশাপাশি, এই ফলাফলের জেরে তৃণমূলের একাংশে বিভিন্ন তদন্ত নিয়ে আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। উত্তরপ্রদেশে জয়ের পর এরকম ক্ষেত্রে মোদী সরকার আরও কঠোর হতে পারে বলে দলের ভিতরে আশঙ্কাও রয়েছে। মুকুল অবশ্য বলেন, ‘‘হলে হবে। তৃণমূলের সাংগঠনিক বিস্তার এখন পঞ্চায়েত পর্যন্ত। ১০-১৫ জন নেতাকে জেলে পাঠিয়ে এইরকম সংগঠনকে দুর্বল করা যায় না।’’ মমতা অবশ্য এদিনও বিজেপি’র বিরোধিতায় ঐক্যবদ্ধ হওয়ার ইঙ্গিত দিয়ে বলেন, ‘‘মানুষের উপর ভরসা রাখুন। পরাজিতেরা ভেঙে পড়বেন না।’’
শনিবার সকাল থেকেই তৃণমূল নেতাদের নজর ছিল গণনায়। ফল নিয়ে কাটাছেঁড়ায় বসেছিলেন দলের তিন শীর্ষনেতা পার্থ চট্টোপাধ্যায়, সুব্রত বক্সি ও মুকুল রায়। যদিও বিজেপির এই জয়কে প্রকাশ্যে বাড়তি গুরুত্ব দিতে নারাজ তাঁরা। পার্থের কথায়, ‘‘গত লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যে বিজেপিকে রুখে দিয়েছিলেন মমতা। উত্তরপ্রদেশে বিরোধীরা তা পারেনি।’’
মুকুল বলেন, ‘‘লোকসভা ভোটের ফল বিশ্লেষণ করলে দেখা যাবে, বিজেপি’র দখলে ৩৩২টি বিধানসভা আসন ছিল। এবারও তার কাছাকাছি।’’

হিন্দুনববার্তা বাংলা ডেস্ক:

– এবেলা (১২-০৩-২০১৭)

ভালো লাগলে শেয়ার করুন –
Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s