১০ বছরে নন্দীগ্রাম: আন্দোলনে ছিল মাওবাদীরা, স্বীকারোক্তি মন্ত্রীর।

১০ বছরে নন্দীগ্রাম: আন্দোলনে ছিল মাওবাদীরা, স্বীকারোক্তি মন্ত্রীর।

1489493561352

হিন্দুনববার্তা বাংলা ডেস্ক: March.14.03.2017.

 কলকাতা: নন্দীগ্রামের আন্দোলনে গ্রামবাসীদের সঙ্গে মাওবাদীরা ছিল৷ এই স্বীকারোক্তি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বর্তমান মন্ত্রিসভার এক সদস্যের৷ পরে অবশ্য ভোল বদলে ফেলেন ওই মন্ত্রী৷ বলেন, কে মাওবাদী সেটা তাঁর পক্ষে বোঝা সম্ভব নয়৷ তবে, তাঁকে তখন গ্রামবাসীরাই বলেছিলেন সেখানে মাওবাদীদের আনাগোনা ছিল৷
বামেদের তরফে বিভিন্ন সময় দাবি করা হয়েছে, নন্দীগ্রামে মাওবাদীরা ছিল৷ গ্রামের মানুষকে ভুল বুঝিয়ে সরকারের বিরুদ্ধে অস্ত্র প্রশিক্ষণ দিয়েছিল৷ কার্যত বামেদের এই দাবিকেই এ বার স্বীকার করে নিলেন রাজ্যের বর্তমান মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী৷ ১০ বছর আগে ২০০৭-এর ১৪ মার্চের প্রসঙ্গে তাঁর কাছে জানতে চাওয়া  কে তিনি বলেন, ‘‘শান্তিতে আছে নন্দীগ্রাম৷ আগের মতো সেখানে মাওবাদীরা নেই৷’’ একই সঙ্গে সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী বলেন, ‘‘আন্দোলনের সময় যে মাওবাদীরা ছিল৷ এখন সেই মাওবাদীরা নেই৷

নন্দীগ্রামে মাওবাদীদের ভূমিকার কথা বিভিন্ন সময় অস্বীকার করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পরে মাওবাদীদের প্রসঙ্গে বামেদের দাবি কার্যত উড়িয়ে দিয়েছেন তিনি৷ অথচ, তাঁরই বর্তমান মন্ত্রিসভার সদস্য সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী স্বীকার করে নিলেন মাওবাদীদের বিষয়টি? এমনই প্রশ্নের জবাবে অবশ্য ভোল বদলে ফেলেন মন্ত্রী৷ সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী এ বার কে বলেন, ‘‘আমায় তখন ওখানকার গ্রামের লোকেরাই বলতেন সেখানে মাওবাদীরা আছে৷ আমার পক্ষে তো আর চেনা সম্ভব নয় কে মাওবাদী আর কে নয়৷ কোনওভাবে ওখানে ওরা ঢুকেছিল৷ গ্রামের লোকের সঙ্গে মিশে গিয়েছিল৷’’

মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরীর এই মন্তব্যের জেরে স্বাভাবিকভাবে বামেদের তরফে তীব্র প্রতিক্রিয়া মিলেছে৷ এই বিষয়ে সিপিএমের রাজ্য কমিটির সদস্য রবীন দেব কে বলেন, ‘‘সত্য ক্রমশ প্রকাশিত হবেই৷ সিবিআইয়ের রিপোর্টেও মাওবাদীদের কথা উল্লেখ রয়েছে৷ তাই সিদ্দিকুল্লা চৌধুরীর মতো নেতারা এখন তা স্বীকার করছেন৷’’ সেই সময় বাম সরকারকে ক্ষমতা থেকে সরাতে নন্দীগ্রামে একটা ‘রামধনু’ জোট তৈরি হয়েছিল৷ এবং, নন্দীগ্রামে পুলিশের একটা অংশের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তুলে রবীন দেব বলেন, ‘‘সেই সময় যে পুলিশ আধিকারিকরা বিরোধীদের সাহায্য করেছিলেন, আজ তাঁদের পুরস্কৃত করা হচ্ছে৷ বিরোধী থাকার সময় যাঁদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছিল, তাঁদেরই এখন সরকার পদোন্নতি করাচ্ছে৷ এটা থেকেই তো স্পষ্ট বাম সরকারের বিরুদ্ধে চক্রান্ত হয়েছিল৷’’ রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের একটা অংশ মনে করছে, বর্তমানে রাজ্যের মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী যদি মাওবাদীদের প্রসঙ্গে এই ধরনের মন্তব্য করেন, তা হলে নন্দীগ্রামের আন্দোলনের বিষয়ে প্রশ্ন উঠতেই পারে!

হিন্দুনববার্তা বাংলা ডেস্ক:

 প্রকাশ:    www.kolkata24x7.com-

ভালো লাগলে শেয়ার করবেন।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s