ট্রাম্প জুজু! হাফিজকে সন্ত্রাসবাদ আইনে ফেলল পাকিস্তান।

ট্রাম্প জুজু! হাফিজকে সন্ত্রাসবাদ আইনে ফেলল পাকিস্তান

মার্কিন প্রেসিডেন্টের রোষ থেকে বাঁচতেই কি পদক্ষেপ?

 the magazIn news hindunobobarta 26.03.2017.
Hafiz

ইসলামাবাদ, ১৮ ফেব্রুয়ারি। পাকিস্তানের সন্ত্রাসবিরোধী আইনে অভি‌যুক্তদের তালিকায় নাম উঠল জামাত-উদ-দাওয়ার প্রধান হাফিজ সইদের। পাক দৈনিক ডনের প্রতিবেদনের দাবি, ২৬/১১ মুম্বই হামলার মূলচক্রী হাফিজের সঙ্গে সন্ত্রাসের ‌যোগ রয়েছে , সেজন্যই এই পদক্ষেপ করল পঞ্জাব প্রদেশের সরকার। তালিকায় নাম রয়েছে হাফিজের ঘনিষ্ট কাজি কাসিমেরও। এছাড়া আরও তিন জঙ্গিনেতাকে এই তালিকায় রাখা হয়েছে। পাক সন্ত্রাস দমন বিভাগকে এই পাঁচজনের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে অভ্যন্তরীণ মন্ত্রক। (আরও পড়ুন। 

গত ২০ জানুয়ারি থেকে লাহোরে গৃহবন্দি হয়ে রয়েছে হাফিজ সইদ।  সইদ এবং আরও ৩৭ জন জামাত-উ-দাওয়া ও ফালাহ-ই-ইনসানিয়াতের নেতার দেশ ছাড়ার ওপরে নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে। পাকিস্তানের আইন অনু‌যায়ী, কারও সঙ্গে সন্ত্রাসের ‌যোগ থাকলে সন্ত্রাসবিরোধী আইনের তালিকায় ফেলা হয়। অর্থাৎ হাফিজ সইদ ‌যে সন্ত্রাসবাদী, তা এবার স্বীকার করে নিল পাকিস্তান। (আরও পড়ুন। 

মুম্বই হামলার মূলচক্রী হাফিজ সইদের বিরুদ্ধে আগেও একাধিক তথ্যপ্রমাণ পাকিস্তানের হাতে তুলে দিয়েছে ভারত। তবে পাকিস্তান তার বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেয়নি। জামত-উদ-দাওয়ার আড়ালে হাফিজ জঙ্গি সংগঠন লস্কর-ই-তৈবা চালায়। প্রকাশ্যে ভারতকে হুমকিও দিয়েছে। কিন্তু তা সত্ত্বেও ইসলামাবাদ কোনও পদক্ষেপ করেনি। বরং ভারতবিরোধী এই জঙ্গি সংগঠনকে মদত দিয়ে এসেছে। তার ফল ‌যে তারাও ভোগ করছ,সেটা সাম্প্রতিককালে পাকিস্তানে একের পর এক  জঙ্গি হামলার ঘটনাতেই স্পষ্ট।

গত এক সপ্তাহে সে দেশে পাঁচটি সন্ত্রাসবাদী হামলা হয়েছে। প্রাণ গিয়েছে বহু নিরীহ মানুষের। শুক্রবারই একটি আন্তর্জাতিক সংগঠন জানিয়েছিল, করাচির বৃহত্তম মাদ্রাসাকে জঙ্গি তৈরির কারখানা বানিয়ে ফেলেছে হাফিজ সইদ। গোটা করাচিই হয়ে উঠেছে জঙ্গিদের স্বর্গোদ্যান।

পাকিস্তানের মাটি ‌যে সন্ত্রাসবাদে ঘাঁটি, তা গোটা বিশ্ব জেনে গিয়েছে। মার্কিন ‌যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইসলামিক সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে ‌যুদ্ধ ঘোষণা করেছেন। সাতটি মুসলিম দেশের নাগরিকদের আমেরিকায় ঢোকার ওপরে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিলেন। ফলে সিঁদুরে মেঘ দেখতে পাচ্ছে নওয়াজ শরিফ সরকার। মার্কিন ত্রাণ বন্ধ হলে পাকিস্তানের অবস্থা আরও শোচনীয় হয়ে পড়বে। আর তাই ট্রাম্পের ভয়েই হাফিজ সইদের মতো জঙ্গি নেতার বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করছে তারা।

the magazIn news hindunobobarta 26.03.2017.

সুত্র : IndIa com.

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: