‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগান দেওয়ায় পড়ুয়াদের মারধর।

‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগান দেওয়ায় পড়ুয়াদের মারধর।

1490587407489

উলুবেড়িয়া: রাজ্য জুড়ে রাম নবমী নিয়ে চলা বিতর্কের মাঝেই তৈরি হল নয়া বিতর্ক। ভগবান শ্রী রাম চন্দ্রের নাম স্লোগান দেওয়ার কারণে স্কুলে ঢুকে ছাত্রদের প্রহার করল একদল বহিরাগত। মঙ্গলবার ঘটনাটি ঘটেছে হাওড়া জেলার উলুবেড়িয়া হাই স্কুলে।

পরীক্ষা শেষে স্কুলের সিঁড়ি দিয়ে নামার সময় মজার ছলে কয়েকজন ছাত্র বলে উঠেছিল ‘জয় শ্রী রাম’। এই স্লোগান দেওয়াটাই কাল হয়ে দাঁড়াল উলুবেড়িয়া হাই স্কুলের নবম-দশম শ্রেণীর একদল ছাত্রের। ওই স্লোগান দেওয়ার ‘অপরাধে’ স্কুলে ঢুকে তাদের মারধর করে একদল বহিরাগত। অভিযোগ শুধু পড়ুয়াদেরই নয়, বহিরাগতদের হাতে আক্রান্ত হয়েছেন স্কুলের শিক্ষক কার্তিক দাস। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, নবম-দশম শ্রেণীর ছাত্রদের মুখে ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগান শুনে রেগে যায় স্কুলেরই কিছু পড়ুয়া। শুরু হয় বচসা। রামের নামে স্লোগানের বিরোধীরা এরপরেই স্কুলে কিছু বহিরাগতদের দেকে নিয়ে আসে। সেই বহিরাগতরাই স্কুলে ঢুকে ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগান দেওয়া পড়ুয়াদের মারধর করতে শুরু করে। বহিরাগতদের থেকে আক্রান্ত ছাত্রদের বাঁচাতে গিয়েছিলেন স্কুলের ভূগোলের শিক্ষক কার্তিক দাস। তাঁর উপরেও হামলাকরীরা চড়াও হয় বলে অভিযোগ উঠেছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় পুলিশ। স্কুলের প্রধান শিক্ষক এবং আক্রান্ত শিক্ষক কেউই এই বিষয়ে মুখ খোলেননি।

এই উলুবেড়িয়াতেই ধর্মের নামে আক্রান্ত স্কুলে মৌলবাদীদের চড়াও হওয়ার অভিযোগ উঠেছিল। গত ডিসেম্বর মাসে নবী দিবস পালনের দাবি ঘিরে উত্তাল হয়েছিল উলুবেড়িয়ার তেহট্ট হাই স্কুল। চাপের মুখে বন্ধ করে দেওয়া হয় ওই স্কুলের সরস্বতী পুজো। স্কুলে সরস্বতী পুজো করার দাবিতে আন্দোলন করে আক্রান্ত হয়েছিল অনেক পড়ুয়া

হিন্দু নববার্তা মাগাজিঙ নিউজ ১২.০৪.২০১৭.

ভালো লাগলে শেয়ার করুন।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s