তালাক পেয়ে হিন্দু মহাসভার যজ্ঞে মুসলিম মহিলারা।

তালাক পেয়ে হিন্দু মহাসভার যজ্ঞে মুসলিম মহিলারা।

1492348147488

প্রতিবেশী ডেস্ক: স্বামীর থেকে তিন তালাক পেয়ে দিশা হীন হয়ে পড়েছিলেন ফায়জা এবং সালমা। প্রথম জনের রয়েছে তিনটি কন্যা সন্তান, অপরজনের দু’টি।

জীবনের এই প্রবল প্রতিকূল পরিস্থিতি থেকে মুক্তি পেতে হিন্দু মহাসভার যজ্ঞে সামিল হলেন ওই দুই মুসলিম মহিলা।

দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ধর্মীয় ভেদাভেদ নিয়ে বিতরকের মাঝে এই সম্প্রীতির নিদর্শন দেখা গেল উত্তর প্রদেশের আলিগড়ে। যেখানে ভিন্ন ধর্মের ঈশ্বরের সাধনায় মগ্ন হলেন দুই মুসলিম মহিলা।

আলিগড়ের নৌরঙ্গবাদে হিন্দু মহাসভার মোহন্ত সাকুন পাণ্ডে ওই যজ্ঞের আয়োজন করেছিলেন। সেখানেই যজ্ঞে আহুতি দিয়েছেন তালাক প্রাপ্ত দুই মহিলা। দোহরা মাফি এলাকার বাসিন্দা ফায়জার কথায়, “তালাক পেয়ে সাত বছর পিছিয়ে গিয়েছে আমার জীবন।

প্রবল প্রতিকূল পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে পাঁচ কন্যা সন্তান নিয়ে দিন কাটছে।” দুই কন্যা নিয়ে একই অবস্থা তাপ্পালের বাসিন্দা সালমার।

ধর্মের এই কড়া অনুশাসনকে কাঠগড়ায় তুলে সমাজকর্মী ভুট্টো খান বলেছেন, “মুসলিম সমাজ এই মহিলাদের সাহায্য করলে তাঁরা এখানে আসতেন না। তিন তালাক বন্ধে সমাজের সব স্তরের মানুষের এগিয়ে আসা প্রয়োজন।” এই ভুট্টো খানের উদ্যোগেই হিন্দু মহাসভার যজ্ঞে সামিল হয়েছেন হিন্দু মহিলারা।

ফায়জা বা সালমা ছাড়াও অনেক মুসলিম মহিলা স্বামীর থেকে তালাক পেয়ে হিন্দু মহাসভার যজ্ঞে অংশ নিয়ে থাকেন। এমনই দাবি করেছেন হিন্দু মহাসভার মোহন্ত সাকুন পাণ্ডে।

দিন কয়েক আগেই বুলান্দ শহর থেকে রেহানা নামের এক তালাক প্রাপ্ত মুসলিম মহিলা যজ্ঞ করেছিলেন বলে জানিয়েছেন তিনি। একইসঙ্গে তাঁর দাবি, “এই মহিলারা যজ্ঞে অংশ নিলেও কাউকে ধর্মান্তরিত করা হয়নি”। নিজেদের জীবনের এই ধরণের সমস্যার সমাধানের জন্য ওই মহিলাদের হিন্দু ধর্ম গ্রহণের প্রস্তাব দিয়েছেন মোহন্ত সাকুন পাণ্ডে। খবর: কলকাতা24

হিন্দু নববার্তা ম্যাগাজিঙ নিউজ ১৬.০৪.২০১৭.

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s